ছোটগল্প ৬৭ – রতনবাবু আর সেই লোকটা / Short Story 67 – Ratanbabu Ar Shei Lokta (Reflection)

Satyajit Ray-Ratanbabu Ar Shei Lokta 1পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Ratanbabu Ar Shei Lokta

রতনবাবু আর সেই লোকটা – সত্যজিৎ রায়

পাঠকের কি কখনো মনে হয়, যে যদি প্রতিটি মানুষের মত হুবহ আরেকজন যদি থাকত, যার চেহারা থেকে শুরু করে চিন্তা-ভাবনা আচার আচরণ প্রথমজনেরই মত? অন্যের মাঝে নিজেদের প্রতিবিম্ব দেখতে পেয়ে কি আমাদের ভাল লাগত? হয়তোবা। কিন্তু আমাদের নিজেদের ভিতরকার যেই অন্ধকারটুকু আমরা ভয় করি, সেটাও যদি হুবহু অন্য কারও মধ্যে থাকে, আর তারই সাথে যদি কখনো দেখাও হয়ে যায়, তাহলে? সে সম্ভাবনা নিয়েই সত্যজিৎ রায়ের এই গল্প।

Ratanbabu Ar Shei Lokta (Reflection) – Satyajit Ray

Have you ever thought how it would be like if each of us had a double? Perhaps knowing that there is one person who looks and thinks exactly like you, feels the same things, and understands you like no other would be comforting. What though, if that person understands you too well, and has the same vices and dark sides at (s)he knows you to have? In Ratanbabu Ar Shei Lokta (Reflection), Satyajit Ray explores what could happen.

Advertisements

ছোটগল্প ৪২ – ভূতো / Short Story 42 – Bhuto (The Ventriloquist’s Doll)

Satyajit Ray-Bhuto

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link:  Satyajit Ray-Bhuto

ভূতো – সত্যজিৎ রায়

জাদু নিয়ে সত্যজিৎ রায়ের লেখা কিছু গল্প এই সাইটে আগে তুলে দিয়েছিলাম। সে ধারাতেই আরেকটি সংযোজন ভূতো । ভৌতিক এই গল্পটির শুরুতে নবীন নামের ভেন্ট্রিলোকুইজম শিখতে আগ্রহী এক তরুণ একজন প্রতিষ্ঠিত জাদুকরের কাছে সাহায্য চেয়ে বেশ অপমানিত হয়। তারই প্রতিশোধ নিতে নবীন সেই জাদুকরটির আদলে ‘ভূতো’ নামের একটি পুতুল তৈরী করে ভেন্ট্রিলোকুইজম দেখাতে শুরু করে। শুরুতে নবীনের বেশ সাফল্য আসে, আর নবীন আর ভূতোর খ্যাতি বাড়ার সাথে সাথে সেই জাদুকরটিও ক্রমশ লোকজনের হাসির পাত্রে পরিণত হন… তারপর একদিন হঠাৎই পুতুলটির মধ্যে রহস্যজনক কিছু পরিবর্তন দেখা দেয়। প্রথমে নবীন সেসবকে চোখের ভুল বলে উড়িয়ে দিলেও অচিরেই সে বুঝতে পারে যে ভুতোর বদলে যাওয়া নিছক তার কল্পনা নয়।

Bhuto (The Ventriloquist’s Doll) – Satyajit Ray

This time, a continuation of the series of stories on magic by Satyajit Ray. In Bhuto, a vindictive ventriloquist makes a doll in the likeness of a magician who had once refused to mentor him. At first, his performances with the doll bring him success, but soon things take a turn for the worse as the doll starts to mysteriously develop new traits.

ছোটগল্প ৩২ – খগম / Short Story 32 – Khagam

Khagam

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Khagam

খগম – সত্যজিৎ রায়

খগম সত্যজিৎ রায়ের সেরা ভয়ের গল্পগুলোর মধ্যে একটি। ভারতের এক প্রত্যন্ত কোণে ছুটি কাটাতে গিয়ে গল্পের উত্তম পুরুষের (বর্ণনাকারী) সাথে ধুর্জটিবাবু নামের এক বাঙ্গালী ভদ্রলোকের পরিচয় ঘটে। সেখানে থাকাবস্থায় স্থানীয় লোকজনদের কাছে ইমলিবাবা নামের এক সন্ন্যাসী আর তার পোষা সাপের কথা শুনে তারা তাকে দেখতে যান। সাধু-সন্ন্যাসীদের উপর ধুর্জটিবাবুর আগে থেকেই সন্দেহ ছিল, আর তার উপর সাধুবাবার সাথে দেখা করার সময় এমন একটি ঘটনা ঘটে, যাতে ধুর্জটিবাবুর উল্লাস আর অবিশ্বাস আরও পাকা হয়। কিন্তু সেই ঘটনার রাতেই ধুর্জটিবাবুর ব্যবহার রহস্যজনকভাবে বদলে যায়… আর তারপর ঘটনাবলী এমনভাবে অতিপ্রাকৃতের দিকে মোড় নেয়, যে তা আমাদেরকে ভয়ে-বিস্ময়ে বাকরূদ্ধ করে দেয়।

শিড়দাঁড়া বেয়ে শিহরণ খেলে যাওয়ার জন্য কটি লাইন –

‘সাপের ভাষা সাপের শিস, ফিস্‌ ফিস্‌ ফিস্‌ ফিস্‌!
বালকিষণের বিষম বিষ, ফিস্‌ ফিস্‌ ফিস্‌ ফিস্‌!’

Khagam – Satyajit Ray

Of the scary stories written by Satyajit Ray, Khagam is certainly one of the most spine-chilling. The story starts innocuously enough, with the narrator coming across a fellow Bangalee gentlemen while traveling in a remote part of India. After hearing from the locals about a supposed ascetic and his pet snake, the two decide to pay a visit, the narrator to satisfy his curiosity, and the acquaintance to solidify his doubt. The visit goes much to the latter’s satisfaction, but that night, things take a terrifyingly supernatural turn, leaving the narrator – and us – astonished and terrified.

ছোটগল্প ২৩ – মৃগাঙ্কবাবুর ঘটনা / Short Story 23 – Mrigankababur Ghatana (The Metamorphosis of Mr. Mriganka)

Mriganka Babuপিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Mrigankababur Ghatana

মৃগাঙ্কবাবুর ঘটনা – সত্যজিৎ রায়

সত্যজিৎ রায়ের আরেকটি গল্প – একজন মানুষের রহস্যময় বিবর্তন নিয়ে।  ‘মৃগাঙ্কবাবুর ঘটনা’কে সায়েন্স ফিকশন বলা যেতে পারে, তবে গল্পটির চরিত্রগুলো আমাদের পারিপার্শ্বিক হওয়ায় পাঠকের শিড়দাঁড়া বেয়ে ওঠা শিহরণগুলো একটু বেশিই বাস্তব হয়ে ঠেকে।

Mrigankababur Ghatana (The Metamorphosis of Mr. Mriganka) – Satyajit Ray

This time, a story about the mysterious transformation of a man. The story is a science fiction of sorts, but since the characters happen to be just like the people around us, the chills experienced by the reader arise from fears that are very much present, rather than from visions of the future or the past.

ছোটগল্প ২২ – ফ্রিৎস / Short Story 22 – Fritz

Fritz WP

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Fritz

ফ্রিৎস – সত্যজিৎ রায়

এবার একটা ভয়ের গল্প – আমাদের অনেকেরই ছোটবেলায় কোনো না কোনো খেলনা ছিল, যেগুলোর প্রতি সেসময় আমরা অসম্ভব টান অনুভব করতাম। বড় হওয়ার সাথে সাথে সেগুলোর প্রতি আমাদের টান কমে আসে, একসময়কার প্রিয় খেলনা হেলায় ফেলে দেওয়া কিংবা ফেলে আসা হয়। কিন্তু খেলনাগুলো কি আমাদের মনে রাখে?

Fritz – Satyajit Ray

This time, a tale of unease: Perhaps all of us remember the one toy each of us was most attached to during our childhoods. Growing up often makes us detached from those little things we played with, and in the course of our lives, we forget and leave them behind. But do the toys remember?

ছোটগল্প ১৩ – বাতিকবাবু / Short Story 13 – Batikbabu (A Man of Strange Habits)

Batikbabuপিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Batikbabu

বাতিকবাবু – সত্যজিৎ রায়

ছুটিতে দার্জিলিং বেড়াতে গিয়ে গল্পের উত্তম পুরুষ (ফার্স্ট পারসন) এর সাথে বাতিকবাবু নামের এক অদ্ভুত ভদ্রলোকের সাথে পরিচয় হয়। বাতিকবাবুর কিছু অভ্যাস তার চারপাশের মানুষদের ব্যাঙ্গ উদ্রেক করলেও সময়ের সাথে সাথে তার মধ্যেকার একটি অতীন্দ্রীয় (এক্সট্রাসেন্সরি) ক্ষমতা আমাদের কাছে ক্রমশই স্পষ্ট হয়ে ওঠে, এবং গল্পটিকে নিয়ে যায় একটি রোমহর্ষক পরিণতির দিকে।

Batikbabu (A Man of Strange Habits) – Satyajit Ray

In this story, the narrator, who is on a vacation in Darjeeling, meets an eccentric man named Batikbabu. Although the man is much ridiculed by the locals for his habits, it soon becomes clear to us that Batikbabu’s eccentricity is due to a singular extrasensory perception – one that leads the story to a chilling end.