গল্প ১০৫ – ফেলুদা – কৈলাসে কেলেঙ্কারী / Story 105 – Feluda – Kailash e Kelenkari (A Killer In Kailash)

Satyajit Ray-Feluda-Kailash e Kelenkari 1পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Kailash e Kelenkari

ফেলুদার গল্প – কৈলাসে কেলেঙ্কারী – সত্যজিৎ রায়

অনেকদিন পর এই সাইটে আবার ফেলুদা – আর এবার এমনই একটি গল্পে, যা এতদিনের বিরতিকে ন্যায্যতা দেওয়ার মতই রহস্য-রোমাঞ্চে ঠাসা। ফেলুদার গল্পগুলোর বেশিরভাগই সত্যজিৎ রায় লিখেছিলেন কোন ব্যক্তিবিশেষ কিংবা পরিবারকে ঘিরে কোন রহস্যকে নিয়ে – যেমনটা আমরা পাই এবার কাণ্ড কেদারনাথে কিংবা ছিন্নমস্তার অভিশাপ এর মত গল্পগুলোতে। কৈলাসে কেলেঙ্কারী সেদিক দিয়ে একটু আলাদা – এই গল্পে ফেলুদাকে লড়তে হয় এমনই একটি চক্রের সাথে, যাদের নাগাল ভারতের প্রতিটি কোণে, আর যাদের কাছ থেকে নিজেকে ও তোপসেদের মুক্ত রাখতে প্রায় পুরো গল্পজুড়েই ফেলুদাকে থাকতে হয় আমাদের অগোচরে। পাঠকদের একটু সুড়সুড়ি দেওয়ার জন্যে গল্প থেকে দুটো অনুচ্ছেদ তুলে দেই –

“কেন মুশকিল কেন?… তবে একটা কথা বলি – একটা অ্যাডভাইস, অ্যাজ এ ফ্রেন্ড – এই সব র‍্যাকেটের পেছনে মাঝে মাঝে এক একটা দল থাকে – গ্যাং – এবং তারা বেশ পাওয়ারফুল হয়। গায়ের জোর বলছি না। পয়সার জোর। পোজিশনের জোর। শিক্ষিত অবস্থাপন্ন লোকেরা যখন নোংরা কাজে নামে, তখন সাধারণ ক্রিমিনালদের চেয়ে তাদের বাগে আনা অনেক বেশি শক্ত হয়, জানেন তো?”

আর এটা ফেলুদার –

“(এটা) আরও বেশি প্রেশাস। চুনি পান্না পৃথিবীতে হাজার হাজার আছে, ভবিষ্যতে সংখ্যায় আরও বাড়বে। কিন্তু কৈলাসের মন্দির বা সাঁচির স্তূপ বা এলিফ্যান্টার গুহা – এসব একটা বই দুটো নেই। হাজার-দু হাজার বছর আগে আমাদের আর্ট যে হাইটে উঠেছিল সে হাইটে ওঠার কথা আজকের আর্টিস্ট ভাবতেই পারে না। সুতরাং সে যুগের আর্ট দেশে যা আছে তাকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। যারা তাকে নষ্ট করতে চায় তারা ক্রিমিন্যাল। আমার মতে ভূবনেশ্বরের যক্ষীকে হত্যা করা হয়েছে। যে করেছে তার কঠিন শাস্তি হওয়া দরকার।”

অমূল্য প্রত্নসম্পদ, সঙ্ঘবদ্ধ পাচারকারী ও গোয়েন্দা প্রদোষ চন্দ্র মিত্র… তিন ‘প’তে মিলে ফেলুদার আরেকটি দুর্দান্ত গল্প – কৈলাসে কেলেঙ্কারী – পাঠকদের জন্যে।

Feluda’s Adventures – Kailash e Kelenkari (A Killer in Kailash)

A long break later, a Feluda upload again – and this time, a story that is certainly worth the long wait that has been for some of you. While most of Feluda’s stories were centred on mysterious families and/or individuals (Chinnamaster Abhishap and Ebar Kando Kedarnath e are cases in point) Kailash e Kelenkari (A Killer in Kailash) is a big departure from that trend – in this story, our favorite sleuth faces a syndicate that not only is pan-Indian in its reach, but also murdurous in its smuggling of ancient Indian artifacts abroad. Interestingly, unlike Feluda’s other adventures, this story is one with a somewhat nationalistic tone – a generous dose of James Bond added to the usual Holmesian narrative, if you ask me… but far from diluting the plot, that only adds to its thrill. ‘For your eyes only’, therefore, this upload. Enjoy!

Satyajit Ray-Feluda-Kailash e Kelenkari 2

ছোটগল্প ২৯ – বর্ণান্ধ / Short Story 29 – Barnandha (Colour-Blind)

Barnandha

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyaijt Ray-Barnandha

বর্ণান্ধ – সত্যজিৎ রায়

সত্যজিৎ দুর্দান্ত ছবি আঁকতেন বলেই হয়তো তার অনেক লেখাতে চিত্রশিল্পীদের কথা উঠে আসে। এবার সেরকমই একটি গল্প, একজন শিল্পীর, আর অনেকটুকু বিষন্নতার।

Barnandha (Colour-Blind) – Satyajit Ray

Artists and painters have always occupied a special place in Satyajit Ray’s writings, perhaps because the man himself was prolific on the sketchpad. In this post, we look at one of his stories – about an artist, and of sadness.

ছোটগল্প ১৭ – ছবি / Short Story 17 – Chhabi (The Painting)

Chhobi

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Jafar Iqbal-Amra O Crab Nebula-Chhobi

ছবি – জাফর ইকবাল (আমড়া ও ক্র্যাব নেবুলা হতে সংগ্রহিত)

আমাদের মধ্যে প্রায় সবারই ছাত্রজীবনে কোন না কোন বন্ধু থাকে, যাদের কে ঠাট্টা করে আমরা ‘গরু’, ‘গাধা’ ইত্যাদি বলে ডাকি (যাদের তেমন কেউ নেই, তাদের জন্যে সঙ্গতকারণেই একটু দুঃখ হয়)। কখনো কখনো আবার সেসব বন্ধুরাই পরে কেমন কেমন করে সমাজে ‘বড়’ হয়ে দাঁড়ায় – যদিও সত্যি বলতে কি, গরু থেকে মানুষ তারা কখনোই হয়ে ওঠে না। এবার তেমনই একজন ‘গরুবন্ধু’ কে নিয়ে একটি মজার গল্প, জনপ্রিয় লেখক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের লেখা।

Chhabi (The Painting) – Zafar Iqbal (from Amra O Crab Nebula)

Having a friend who a bit dimer than the others in the circle – or a cow as we affectionately call the type in Bangla – is perhaps something most of us can identify with (those who cannot understandably deserve our sympathy). Sometimes, however, it is precisely those friends who go on to become big in society by dubious means- although they never really change on the inside. In this amusing story, popular Bangladeshi writer Zafar Iqbal portrays one such friend.