গল্প ১২৪ – ফেলুদা – সমাদ্দারের চাবি / Story 124 – Feluda – Samaddarer Chabi (Samaddar’s Key)

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Samaddarer Chabi

ফেলুদার গল্প – সমাদ্দারের চাবি – সত্যজিৎ রায়

এই সাইটে আগে তোলা রহস্য-উপন্যাসগুলোর ধারাবাহিকতায় আজ ফেলুদার আরেকটি দুর্দান্ত গোয়েন্দাগল্প। সমাদ্দারের চাবি গল্পটির শুরু হয় রাধারমণ সমাদ্দার নামের এক ধনী বৃদ্ধ প্রয়াত হওয়ার সূত্র ধরে। রাধারমণ বাবু পেশায় উকিল হলেও তাঁর ঝোঁক ছিল গান-বাজনার দিকে, তাই পয়সা ও পসার হয়ে গেলে তিনি ওকালতি ছেড়ে শুধু গান ও বাদ্যযন্ত্র সংগ্রহের দিকে মন দেন। সঙ্গীতের নেশা আর কৃপণস্বভাবের কারণে হাতেগোণা দুয়েকজন বাদে রাধারমণবাবুর সাথে কারোরই খুব একটা যোগাযোগ ছিল না, তাই তিনি মারা গেলে মণিমোহন সমাদ্দার নামের এক ভাইপোর হাতে তাঁর বিষয়-সম্পত্তির ভার এসে পড়ে। সদ্যপ্রয়াত কাকা যে যথেষ্ট ধনী ছিলেন, মণিমোহনবাবু তা জানতেন, কিন্তু কাকার ঘর তন্ন তন্ন করে খুঁজেও বাদ্যযন্ত্র ছাড়া আর কিছু খুঁজে না পেয়ে শেষ পর্যন্ত তিনি ফেলুদার শরণাপন্ন হন। অনুরোধটি অভিনব, তাই ফেলুদা হারানো টাকার হেঁয়ালী সমাধানে রাজি হয়, কিন্ত তাঁর ধারণা ছিলনা যে প্রয়াত রাধারমণের বুদ্ধি ও বর্তমান চরিত্রদের কার্যকলাপ রহস্যটিকে কতটা প্যাঁচালো করে তুলবে।

হেঁয়ালী যারা ভালবাসেন, তাদের জন্যে গল্পটি থেকে একটি লাইন তুলে দেই – “যার নামে সুর থাকে, তার গলায়ও সুর থাকে।” পড়বার আমন্ত্রণ রইল। 🙂

Feluda’s Adventures – Samaddarer Chabi (Samaddar’s Key) – Satyajit Ray

Today, a fitting story to continue the thread of Feluda stories on this site. Samaddarer Chabi (Samaddar’s Key) starts with the passing of a wealthy old man by the name of Radharaman Samaddar, who was known for his collection of musical instruments. A former lawyer with a passion for music, Samaddar had retired to devote his time to music and the collection of rare musical instruments, and decades of pursuit had resulted in him ending up with quite a collection. Upon his death, his nephew Manimohan Samaddar gains temporary custody of his wealth, but curiously, he finds no traces of his uncle’s wealth except for the collection itself. Unable to find the money, but sure that it was in the house, he asks for Feluda’s help. Sensing novelty in the case, Feluda agree’s to look for the lost money, but he has little idea about how complicated a case this is going to become.

Advertisements

গল্প ১২৩ – ফেলুদা – ঘুরঘুটিয়ার ঘটনা / Story 123 – Feluda – Ghurghutiyar Ghatana (The Ghurghutia Incident)

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Ghurghutiyar Ghatona

ফেলুদার গল্প – ফেলুদার গোয়েন্দাগিরি – সত্যজিৎ রায়

অনেকদিন ধরে এই সাইটে ফেলুদার গল্প তোলা হয়না, তাই আজ এই লেখাটি তোলা। ঘুরঘুটিয়ার ঘটনা  গল্পটির শুরু হয় একটি চিঠি দিয়ে, যার প্রেরক কালীকিঙ্কর মজুমদার নদীয়ার পলাশীর নিকট ঘুরঘুটিয়া গ্রামের একজন বৃদ্ধ জমিদার। কালীকিঙ্করবাবু তাঁর চিঠিতে ফেলুদাকে একটি ‘বিশেষ প্রয়োজনে’ ঘুরঘুটিয়ায় একটি দিন আসার জন্যে অনুরোধ করেন। অনেক দিন গ্রামীণ বাংলার রূপ দেখা হয়নি, আর অনুরোধকারীও যেহেতু একজন আপাতদৃষ্টিতে অসহায় বৃদ্ধ, তাই ফেলুদা যেতে রাজী হন। ঘুরঘুটিয়ার মত অজ-পাড়াগাঁয়ে শহুরে পাঠকেরা হয়তো সাদামাটা ভ্রমণের চাইতে বেশি কিছু আশা করেন না, কিন্তু সেখানে গিয়ে ফেলুদা আর তোপসে কে এমন একটি রহস্যের মুখোমুখি হতে হয়, যেটি মোটেও সরল নয়।

Feluda’s Stories – Feluda’r Goendagiri (Danger in Darjeeling) – Satyajit Ray

After a long interval, another Feluda story. Ghurghutiyar Ghatana (The Ghurghutiya Incident) starts with the arrival of a letter from a certain Kalikingkar Majumdar, an old landlord who lives in Ghurghutiya, near Palashi. In his letter, Mr. Majumdar requests Feluda to visit his house in Ghurghutiya for a day for a ‘special reason’. Being tired of the city, and not wishing to rebuff a request from an old man, Feluda agrees to go. Perhaps an urbanite would not expect much of a mystery in a village like Ghurghutiya, but what Feluda finds after arriving there is very far from simple.