গল্প ১০৯ – ফেলুদা – কৈলাস চৌধুরীর পাথর / Galpo 109 – Feluda – Kailash Chowdhury’r Pathor (Kailash Chowdhury’s Jewel)

Satyajit Ray-Feluda-Kailash Chowdhury'r Pathar

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Kailash Chowdhury’r Pathar

ফেলুদার গল্প – কৈলাস চৌধুরীর পাথর – সত্যজিৎ রায়

এবার ফেলুদার প্রথম দিককার একটি গল্প। ফেলুদার অন্যান্য গল্পের তুলনায় কৈলাস চৌধুরীর পাথর কে বেশ গতানুগতিকই বলা চলে – রহস্যটির শুরু হয় কলকাতার কোন এক বনেদি চৌধুরীবাড়িতে একটি হুমকি চিঠি আসার পর থেকে। ততদিনে গোয়েন্দা হিসেবে বেশ খ্যাতি রটে যাওয়াতে ফেলুদার সেই বাড়ি থেকে তলব আসে, আর প্রাথমিক তদন্তে ফেলুদা জানতে পারে যে চৌধুরী পরিবারের বেশ মূল্যবান একটি সম্পদ আছে, যার উপর রহস্যময় হুমকিদাতার নজর থাকতে পারে। ফেলুদাও সেই সূত্র ধরেই তদন্ত শুরু করে, যদিও অচিরেই তাঁর কাছে এটুকু স্পষ্ট হয়ে যায় যে ব্যাপারটি আপাতদৃষ্টিতে দেখতে যেমন, আসলে তার চাইতে অনেক বেশি গোলমেলে।

পাঠকেরা যদি নিজেরাই গোয়েন্দাগিরী করতে চান, তবে তাদের জন্যে সূত্র হিসেবে একটি শব্দ তুলে দেই – ‘নকল’। : )

Feluda’s Stories – Kailash Chowdhury’r Pathor (Kailash Chowdhury’s Jewel) – Satyajit Ray

This time, one of Feluda’s earlier exploits – Kailash Chowdhury’r Pathor (Kailash Chowdhury’s Jewel) starts with our favorite sleuth already quite famous, something that earns him a call from one of the more respected families in the city. The patriarch of the family, Mr. Kailash Chowdhury, had recently received an anonymous threat letter, and asks Feluda to investigate who might be behind it. Upon questioning his newly acquired client, Feluda learns that the Chowdhury family happens to have a rather expensive jewel, a blue beryl, that the letter-writer might be wanting to extort, and decides to investigate on that assumption. Soon, however, things take a stranger turn, and Feluda Starts to think that he might have been wrong from the very beginning…

In a way of teasing the reader, here is a one word clue – ‘fake’. Enjoy : )

Advertisements

গল্প ১০২ – ফেলুদা – বোসপুকুরে খুনখারাপি / Story 102 – Feluda – Bosepukur e Khunkharapi (Murder in Bosepukur)

Satyajit Ray-Feluda-Bosepukur e Khunkharapi (1)

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Bosepukur e Khunkharapi

ফেলুদার গল্প – বোসপুকুরে খুনখারাপি – সত্যজিৎ রায়

পুনরায় ফেলুদা। বোসপুকুরের আচার্য পরিবারের তিন সন্তান – দেবনারায়ণ, হরিনারায়ণ আর ইন্দ্রনারায়ণ। প্রথম দুজন বড় চাকুরে আর পরিবারের মান অটুট রেখে চলা ভদ্রলোক হলেও ইন্দ্রনারায়ণ ছিলেন একটু অদ্ভূত – গান-বাজনা নিয়ে থাকা মানুষটি যোগ দিয়েছিলেন ভারত অপেরা নামের একটি যাত্রার দলে।  ভাইয়েরা তাকে গ্রাহ্য না করলেও নাট্যলেখক হিসেবে বেশ খ্যাতিমানই হয়ে ওঠেন তিনি – আর সেই খ্যাতিই হয়তোবা তার বিপদের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। একটি সম্ভ্রান্ত পরিবার এবং তা হতে আপাতদৃষ্টিতে অনেক দূরের যাত্রার জগৎকে এক সুতোয় গাঁথা সত্যজিৎ রায়ের আরেকটি ফেলুদা রহস্যোপন্যাস – বোসপুকুরে খুনখারাপি

Feluda’s Stories – Bosepukur e Khunkharapi (Murder in Bosepukur) – Satyajit Ray

One of the more intriguing Feluda stories this time. The Acharyas of Bosepukur are a well-known family, headed by an octogenarian patriarch who has his three sons . The older two, who hold big positions, uphold the family name in the traditional sense. However, Indranarayan, the youngest, is a bit of a black-sheep, and much to his brothers’ chagrin, joins a theatre, where his fame as a writer eventually outstrips those of his snobbish siblings. But fame also creates enemies for Indranarayan, who fails to safeguard himself against them, until it is too late. A mystery that ties the tensions in an elite family with the world of Theatre, Bosepukur e Khunkharapi is a Feluda novel fit for your lazy afternoons. Enjoy!

Satyajit Ray-Feluda-Bosepukur e Khunkharapi (2)

গল্প ৯৮ – ফেলুদা – শেয়াল দেবতা রহস্য / Story 98 – Feluda – Sheyal Debota Rahasya (The Anubis Mystery)

Satyajit Ray-Feluda-Sheyal Debota Rahasya

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Sheyal Debota Rahasya

ফেলুদার গল্প – শেয়াল দেবতা রহস্য – সত্যজিৎ রায়

শেয়াল দেবতা রহস্য ফেলুদার প্রথম দিককার গল্পগুলোর একটি। তোপসে তখনো ছোট, আর ফেলুদাকেও আমরা তাই দেখতে পাই তাঁর ক্ষুদে সহকারীর চোখ দিয়ে। তখন পূজোর ছুটি, আর ফেলুদা আর তোপসে দুজনেরই হাত-পা ঝাড়া, এমন সময় নীলমণি সান্যাল বলে এক ভদ্রলোক ফেলুদার সাথে যোগাযোগ করেন। লটারীর পয়সায় লাল হয়ে যাওয়া নীলমণিবাবুর জীবনটা বেশ নির্ঝঞ্ঝাটই ছিল, আর প্রাচীন জিনিস সংগ্রহ করা ছাড়া আর কাজও ছিলনা তার। কিন্তু বেশ কিছু দিন ধরে তার কাছে আজগুবি ভাষায় লেখা কিছু বেনামী চিঠি আসায় তিনি বেশ উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। ফেলুদা চিঠিগুলো দেখে বুঝতে পারে যে সেগুলো প্রাচীন মিশরের হিয়েরোগ্লিফিক ভাষায় লেখা, আর নীলমণিবাবুকে প্রশ্ন করায় তিনি বলেন যে এক সপ্তাহ আগে এক নীলামে অদ্ভূতএকটি মূর্তি তিনি কেনেন, আর তারপর থেকেই চিঠিগুলো আসতে শুরু করে। ফেলুদা মূর্তিটা দেখেই প্রাচীন মিশরীয় দেবতা আনুবিসের বলে চিনতে পারে, কিন্তু তাঁর তখনো ধারণা ছিলনা যে চিঠিগুলো আর আনুবিসের মূর্তির রহস্যটি কোথায় গড়াতে চলেছে।

Feluda’s Stories – Sheyal Debota Rahasya (The Anubis Mystery) – Satyajit Ray

One of the earlier cases of Feluda, Sheyal Debota Rahasya (The Anubis Mystery) is one in which we see Feluda through the eyes of a much younger Topshe. The story starts during the Puja holidays, with a phone call from some Nilmani Sanyal, who is in need of Feluda’s help. One of those fortunate lottery winners whose names we read on paper, Mr. Sanyal had been an avid collector of curios for a while. Over the past few days, however, he had been getting anonymous letters written in a code that he could not decipher, and worried that this could mean nothing good, he had called the detective. Upon visiting Mr. Sanyal, Feluda immediately recognizes the writing as Hieroglyphic – the language of ancient Egypt, and when he asks Mr. Sanyal if he has bought anything valuable recently, Mr. Sanyal produces a statue – of Anubis, the ancient Egyptian God of the Afterlife. Feluda feels that he is onto something, but he has no idea of the mystery to follow.

Satyajit Ray-Feluda-Sheyal Debota Rahasya 2

গল্প ৫৮ – ফেলুদা – ডাঃ মুনসীর ডায়েরী / Story 58 – Feluda – Dr. Munshi’s Diary

 

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Feluda-Dr Munshir Diary

ফেলুদার গল্প – ডাঃ মুনসীর ডায়েরী – সত্যজিৎ রায়

ফেলুদার আরেকটি গল্প। ডাঃ রাজেন মুনসী, কলকাতার স্বনামধন্য মনোবিজ্ঞানী, চল্লিশ বছর ধরে লিখে আসা ডায়েরী অবশেষে বই আকারে বের করার সিদ্ধান্ত নেন। তার গর্ব – ডায়েরীতে একটিও মিথ্যে কথা তিনি লেখেননি। তবে তিনি মনোবিজ্ঞানী বলে অনেকেরই গোপন কথা তিনি জানেন, যাদের বইটি বের হওয়া নিয়ে আপত্তি করা অস্বাভাবিক নয়। সেদিক থেকে যাতে বাঁধা না আসে, সেজন্যে ডাঃ মুনসী ফেলুদাকে নিয়োগ করেন তাদের বুঝিয়ে বলার জন্য। তবে গল্পের পিছনেও যে আরও অনেক ঘটনা আছে, তা ফেলুদা প্রথমে না জানলেও তার কাছে সেসব স্পষ্ট হয়ে ওঠে অচিরেই।

Feluda’s Adventures – Dr. Munshi’s Diary – Satyajit Ray

Another of Feluda’s stories: Dr. Rajen Munshi, a famous psychiatrist in Koklata, decides to publish a series of diaries that he has been writing for the last 40 years… His point of pride: there is not a a single lie in those writings. Some of his clients, however, do not take the news well, fearing that private details they intimated to him would soon go public. Dr. Munshi hires Feluda to convince those people, but then, things take an unexpected turn…

গল্প ৩৪ – ফেলুদা – গোলকধাম রহস্য / Story 34 – Feluda – Golakdham Rahasya (A Mysterious Tenant)

satyajit-ray-feluda-golakdham-rahasya

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray-Golakdham Rahashya

ফেলুদার গল্প – গোলকধাম রহস্য – সত্যজিৎ রায়

আবার ফেলুদা, তবে এবারের বর্ণনায় পাঠকদের জন্যে সচরাচর লেখা ভূমিকার বদলে গল্পের এই অংশটুকু তুলে দিলাম –

“অ্যাক্সিডেন্টের পরে তিনি আপনার সাথে যোগাযোগ রাখেননি?”
“না। এটুকু বলতে পারি যে তার একাগ্রতার অভাব ছিল। বায়োকেমিস্ট্রি ছাড়াও অন্য পাঁচ রকম ব্যাপারে তার ইন্টারেস্ট ছিল।”
“বিষ্ফোরণটা কি অসাবধানতার জন্য হয়?”
“আমি নিজে সজ্ঞানে কখনো অসাবধান হইনি।”

মাঝের টেবিলে মোমবাতি রাখায় সকলের মুখ আবার দেখা যাচ্ছে। নীহারবাবুর কালো চশমার দুই কাঁচে দুটি কম্পমান হলদে বিন্দু। মোমবাতির শিখার ছায়া।

ফেলুদা চায়ে আরেকটা চুমুক দিয়ে আবার চশমার দিকে চেয়ে বলল, “আপনার গবেষণার নোট্‌স যদি অন্য কোনো বায়োকেমিস্টের হাতে পড়ে তাহলে তার পক্ষে সেটা লাভজনক হবে কি?”

“নোবেল প্রাইজটা যদি লাভজনক বলে মনে করেন তাহলে হতে পারে বৈকি।”

অন্ধ বিজ্ঞানী, দশরথ, একটি অসমাপ্ত কাজ, দুটি মৃত্যু – মানুষের ভিতরে লুকিয়ে থাকা প্রবৃত্তি নিয়ে সত্যজিৎ রায়ের আরেকটি অসাধারণ গোয়েন্দা গল্প।

Feluda’s Adventures – Golakdham Rahasya (A Mysterious Tenant) – Satyajit Ray

Another of Feluda’s stories. In Golakdham Rahashya, the notes of an emerging scientist who had lost his sight in an explosion are mysteriously stolen. Not everything is what it seems, though, and as Feluda delves into the case, the darker sides to those deemed innocent soon emerge even as those easier to despise escape blame. At the end of it all, though, it is only the scientist’s unfinished task that matters… Golakdham Rahashya is detective fiction, but the range of human emotions it explores make the story one of the most thought-provoking reads among Feluda’s exploits.

গল্প ৩০ – ফেলুদা – গোরস্থানে সাবধান / Story 30 – Feluda – Gorosthane Shabdhan (Beware in the Graveyard)

Gorosthane Shabdhan 1

পিডিএফ লিঙ্ক / PDF Link: Satyajit Ray – Feluda – Gorosthane Shabdhan

ফেলুদার গল্প – গোরস্থানে সাবধান – সত্যজিৎ রায়

এপর্যন্ত এই ওয়েবসাইটে যেসব লেখাগুলো তোলা হয়েছে, সেগুলো আপলোড করার সময় অনেক গোয়েন্দা গল্প হাতে থাকলেও দৈর্ঘ্যের কারণে সেগুলো তুলে দেওয়া থেকে বিরত থেকেছি। আজকালকার দিনে কয়েক পৃষ্ঠার বেশি গল্প পরার সময় মানুষের কোথায়? তবে বিগত কিছু দিন থেকেই খেয়াল করছি যে অনেক পাঠক ফেলুদার যত কান্ড কাঠমান্ডুতে – যা কিনা এখন পর্যন্ত এই সাইটের একমাত্র গোয়েন্দা গল্প – ডাউনলোড করছেন। সেজন্যেই আজ উৎসুক পাঠকদের জন্যে আরেকটি গল্প তুলে দিচ্ছি – যা আমার মতে ফেলুদার কাহিনীগুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা। গোরস্থানে সাবধান গল্পটি শুরু হয় কলকাতার বিখ্যাত পার্ক স্ট্রীট সমাধিক্ষেত্রে, যেখানে ঘুরতে গিয়ে ফেলুদা, তোপসে ও লালমোহনবাবু আকস্মিকভাবে একটি পুরোনো কবর রহস্যজনক ও অর্ধখোঁড়া অবস্থায় আবিস্কার করেন। ঘটনাটির তদন্ত তাদেরকে সেখান থেকে নিয়ে যায় পুরোনো কলকাতার জীর্ণ সাহেবপট্টি থেকে আধুনিক কলকাতার এক সুরম্য প্রাসাদে… আর ফেলুদাকে লড়তে হয় এমন একজনের প্রতিদ্বন্দীর সাথে, যাকে শুধুমাত্র গডফাদার উপাধিটাই মানায়।

Gorosthane Shabdhan 3

Feluda’s Adventures – Gorosthane Shabdhan (Beware in the Graveyard) – Satyajit Ray

Till now, I have largely refrained from uploading detective stories on this site, the reason being their length. After all, few people have the time to read more than a few pages of literature these days. Lately, however, I have noticed that a lot of my readers so far have downloaded Jato Kando Kathmandute (The Criminals of Kathmandu), a story of the Bangalee detective Feluda, and the only detective story in this site so far. So, due to popular demand, here is another of his stories – and perhaps one of the best. In Gorosthane Shabdhan (Beware in the Graveyard), Feluda and his companions come across a partially excavated old tomb in Kolkata’s Park Street Cemetery, the investigation of which leads them to the decaying Anglo-Indian residences of old Kolkata and a palatial residence in the new town. And Feluda comes across an adversary who can only be described as a godfather.

satyajit-ray-feluda-gorosthane-shabdhan-2