কবিতা ৮২ – ভক্তিভাজন / Poem 82 – Bhaktibhajan (Worthy of Devotion)

দীর্ঘ বিরতি বাদে আজ একটি পোস্ট। কিছুদিন আগে একজন কাছের মানুষের সাথে এই যুগের ধর্মব্যাখ্যাকারীদের আত্মম্ভরিতা নিয়ে কথা হচ্ছিল। তখন প্রসঙ্গক্রমে রবিঠাকুরের ভক্তিভাজন কবিতাটির কথা মনে পরে গেল। শুধু চারটি পংক্তিতে রবিঠাকুর মানবচরিত্রের কি যে অসাধারণ ব্যাখ্যা দিয়ে গিয়েছেন, তা লিখে বর্ণনা করা আমার পক্ষে সম্ভব নয়, তাই পাঠকদের উপলব্ধির জন্যে একটি অনুবাদসহ কবিতাটি তুলে দিলাম।

A long break later, another post. A few days earlier, I was talking with a person close to my heart about godmen and their claims of divinity, and our conversation reminded me about this little gem by Thakur. It is striking how the sage condenses profound truths in little verses, and how in their beauty and simplicity, they stay in the heart. So I thought I would put it here for your contemplation. The Bangla version, and a simple translation by yours truly, follows.

ভক্তিভাজন

রথযাত্রা, লোকারণ্য, মহা ধুমধাম,
ভক্তেরা লুটায়ে পথে করিছে প্রণাম।
পথ ভাবে আমি দেব রথ ভাবে আমি,
মূর্তি ভাবে আমি দেব–হাসে অন্তর্যামী।

BhaktiBhajan

As the chariot moves, amidst pomp
and a thousand devotees who
prostrate themselves in its path,
The road thinks, “I must be God”,
as does the chariot. The idol
thinks “It is I”.
The One within silently smiles.

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর / Rabindranath Thakur
(কণিকা হতে সংগ্রহিত / Collected from Kanika)